সর্বশেষ সংবাদঃ-

» দক্ষিণ সুরমায় দুর্বৃত্তদের হামলায় একই পরিবারের ৬ জন আহত, ১৬জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত: 20. January. 2020 | Monday

Spread the love

স্টাফ রিপোর্ট: তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে দক্ষিণ সুরমায় প্রতিপক্ষের হামলায় পিতা, পুত্রসহ একই পরিবারের ৬ জন আহত হয়েছেন।
শনিবার দুপুরে উপজেলার সিলাম ইউনিয়নের তেলিপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন পরিবারের কর্তাব্যক্তি লালা মিয়া (৭০)। আহত অন্যরাও হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।
এ ঘটনায় রোববার মোগলাবাজার থানায় মামলা (নং-০৮(০১)২০২০) দায়ের করেন আক্রান্ত লালা মিয়ার ছেলে ছয়ফুল আলম। মামলায় ৯ জনের নামোল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৫/৭ জনকে আসামি করা হয়েছে।
এজাহারনামীয় আসামীরা হলেন আহতদের প্রতিবেশি তেলিপাড়া গ্রামের মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে মখন মিয়া (৫৫), ইজ্জাদ মিয়া (৫০) ও মানিক মিয়া (৬০), মখন মিয়ার ছেলে জুবেল আহমদ (৩৫) ও ইশতাক মিয়া(৩৮), মানিক মিয়ার ছেলে মিজানুর রহমান (৩০) ও খলিলুর রহমান (২৮),   মৃত মাসুক মিয়ার ছেলে ছালেহ আহমদ (৪০), মৃত জিল্লুল মিয়ার ছেলে নজির মিয়া (৫২)।
এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ঘটনার দিন ছেলেদের নিয়ে ঘরের বাড়ির বাথরুম ও রান্না ঘরের পানি সুষ্ঠুভাবে বাড়ির পেছনে নিজ জায়গা দিয়ে নিস্কাশনের ব্যবস্থা করছিলেন লালা মিয়া। এমন সময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এজাহারনামীয়রাসহ অজ্ঞাত ৫/৭ জন মিলে দেশীয় অস্ত্রসহকারে হামলা করে লালা মিয়াকে কুপিয়ে জখম করে। এসময় লালা মিয়া, তার ছেলে রাসেল আহমদ, রণি আহমদকে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করা হয়। আসামি জুবেল হাতে থাকা হাতুড়ি দিয়ে বাদির সহোদর রাসেলকে রক্তাক্ত জখম করে। তাৎক্ষনিক সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। আসামি ছালেহ আহমদ হাতে থাকা লাঠি দিয়ে বাদির বৃদ্ধ পিতা লালা মিয়াকে মাথায় আঘাত করলে তিনি মাটিতে লুটে পড়েন। আসামি মানিক মিয়া হাতে থাকা বাঁশের লাঠি দিয়ে বাদির বাবার ডান হাতে আঘাত করে। বাদি তার বাবাকে রক্ষা করতে দৌড়ে আসলে আসামি মিজানুর রহমান লোহার পাইপ দিয়ে পিঠে স্বজোরে আঘাত করে। আসামি ইতাক বাদির ভাই রণির পিঠে স্বজোরে আঘাত করে। আসামি খলিল বাদির ছেলে নাদিমকে কিলঘুষি মারতে থাকে। তাদের রক্ষায় ঘরের নারীরা এগিয়ে আসলে আসামি মখন মিয়া বাদির স্ত্রীর মাথার চুল ও কাপড় ধরে টেনে শ্লীলতাহানি ঘটান এবং স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেন। আসামি ইজ্জাদ বাদির মাকে কিলঘুষি মারেন এবং জখমপ্রাপ্ত অবস্থায় বসে থাকা লালা মিয়াকে নজির মিয়া পিঠে লাথি মেরে মাটিয়ে ফেলে দিয়ে ৩ হাজার টাকাও লুটে নেওয়ার অভিযোগ করেন বাদি।

পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় তারা ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেন। আহত লালা মিয়ার মাথার আঘাত গুরুতর হওয়াতে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৬২ বার

[hupso]

Office : Haque Super Market (2nd Floor), Zindabazar, Sylhet-3100.

News & Advertising : sylhet71news@gmail.com     (+88 01710 30 47 08 – News)

 

“Don’t Copyright Without ‘sylhet71news’ Permission.”

Calendar

February 2020
M T W T F S S
« Jan    
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
242526272829