সর্বশেষ সংবাদঃ-

» পরিবেশ মন্ত্রী ও ছাত্রকল্যাণের প্রচেষ্টায় অনন্যার চিকিৎসায় প্রাধানমন্ত্রীর ৫ লক্ষ টাকা প্রদান

প্রকাশিত: 30. April. 2019 | Tuesday

Spread the love

সিলেট৭১নিউজ::সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত সিলেট এমসি কলেজ শিক্ষার্থী অনন্যা দে আঁখির চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে ৫ লাখ টাকা প্রদান করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার ৩০ এপ্রিল ১৯ ইং বেইলি রোডস্থ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বন ও পরিবেশ মন্ত্রীর বাসভবনে চেক হস্তান্তর করা হয়।

প্রধান মন্ত্রীর তহবিল থেকে  চেক গ্রহণ করেন মৌলভীবাজার-১ আসন (বড়লেখা-জুড়ি) উপজেলার সাংসদ বাংলাদেশ সরকারের বন ও পরিবেশ জলবায়ু মন্ত্রী আলহাজ্ব শাহাব উদ্দিন। পরবর্তী তিনি অনন্যা বাবা অরুন কান্তি বড়লেখা ছাত্র কল্যাণ সংঘের সিলেট এর সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম বাবুকে ডেকে নিয়ে চেক হস্তান্তর করেন।

অনন্যা মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলার হাটবন্দ গ্রামের অরুন কান্তি দে’র কন্যা।এবারের এইচএসসি পরীক্ষা ২০১৯ এর পরিক্ষার্থী ছিলো অনন্যা।সে গত ২৪ জানুয়ারি সিলেট বিমানবন্দর সড়কে মারাত্মক সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হলে প্রথমে এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে,পরে ইবনে সিনা হাসপাতালে এবং অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা এপোলো হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয় তাকে।তার মস্তিষ্কে জখম হওয়ায় কয়েকদফা অস্ত্রোপচার করে বর্তমানে তার অবস্থা অনেকটাই উন্নতির দিকে।
অনন্যার বাবা অরুণ কান্তি একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী হওয়ার দরুণ এতো ব্যয়বহুল চিকিৎসা করাতে হিমশিম খেলে তিনি সকলের কাছে সাহায্যের আবেদন জানান।পাশাপাশি তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছেও আবেদন করেন।
অনন্যার চিকিৎসার জন্য সাহায্য সংগ্রহসহ প্রধানমন্ত্রীর নিকট আবেদন করে সিলেটস্থ বড়লেখা ছাত্রকল্যাণ সংঘ সিলেট। বন ও পরিবেশ মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন  আশ্বস্ত করলে প্রধানমন্ত্রী বরাবর আবেদনপত্র সহ এ সংক্রান্ত একটি ফাইল ৫ ই ফেব্রুয়ারী সচিবালয়ে মন্ত্রীর কার্যালয়ে হস্তান্তর করেন বড়লেখা ছাত্রকল্যাণ সংঘ,সিলেট’র সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম বাবু।
ফাইলটি প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত পৌঁছিয়ে অনুদান অনুমোদন করান পরিবেশ মন্ত্রী।

এ ব্যাপারে মুটোফোনে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন,”অনন্যার চিকিৎসার জন্য যে আবেদন আমার কাছে এসেছিলো তা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে গেলে তিনি অনন্যার চিকিৎসার জন্য ৫ লাখ টাকা অনুমোদন করেন।আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ।”

অনন্যার বাবা বলেন,”আমি একজন অসুস্থ মানুষ।দুর্ভাগ্য যে আমার মেয়েটি দুর্ঘটনার শিকার হয়ে প্রায় ১২ দিন কোমায় ছিলো।আমার অসাধ্য এই চিকিৎসার জন্য প্রায় ১০/১২ লক্ষ টাকা ঋণ করেছি।এখন পর্যন্ত প্রায় ৩০ লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে।যার অধিকাংশই আপনাদের ও আমার আত্মীয় স্বজনের সহযোগিতার মাধ্যমে পেয়েছি।মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট করা আমার লিখিত আবেদন আমাদের এমপি মাননীয় পরিবেশ মন্ত্রীর কাছে পাঠিয়েছিলাম।যার জন্য আজকের এই অনুদান প্রাপ্তিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও পরিবেশ  মন্ত্রী মহোদয়সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।আরও যারা সহযোগিতা করেছেন এবং করবেন সকলের প্রতি আমার আজীবন কৃতজ্ঞতা। ”

কামরুল ইসলাম বাবু বলেন,”আমরা প্রথম থেকেই আমাদের দায়িত্ববোধ থেকে অনন্যার চিকিৎসার জন্য যা যা প্রয়োজন সবই করে যাচ্ছি।আমরাই সর্বপ্রথম মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য নিউজের মাধ্যমে আবেদন জানালেও লিখিত আবেদন সংক্রান্ত ফাইলটি আমাদের স্থানীয় সাংসদ ও পরিবেশ মন্ত্রী জনাব আলহাজ্জ্ব শাহাব উদ্দিন মহোদয়ের আশ্বাস পেয়ে উনার কাছেই হস্তান্তর করলে তিনি প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত পৌছিয়ে অনুদান অনুমোদন করান।মাদার অব হিউম্যানিটির প্রতি আজীবন কৃতজ্ঞতা থাকবে।তাছাড়া আমাদের সাহায্য সংগ্রহও অব্যাহত ছিল এবং থাকবে।যেহেতু অনন্যার চিকিৎসার জন্য এখনও প্রায় ১০ লক্ষ টাকার প্রয়োজন। কেননা তার পূর্ণাঙ্গ সুস্থ হওয়া অনেক সময়সাপেক্ষ ও ব্যয়বহুল ব্যাপার।সুতরাং সবাইকে সাহায্য অব্যাহত রাখার অনুরোধ জানাচ্ছি।মাননীয় পরিবেশ মন্ত্রী যার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় অনুদান এসেছে,বড়লেখা উপজেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান,সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের এসিটি পলাশ রঞ্জন দে,আমাদের সভাপতি ফাহিমসহ যারা এই অনুদানের ক্ষেত্রে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেছেন সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।”

অনন্যার চিকিৎসক এপোলো হাসপাতালের নিউরোলজিস্ট ডাঃ জিল্লুর রহমান জানান,অনন্যা আশার চেয়ে বেশি দ্রুত রেসপন্স করেছে।তার ইনজুরি গুলো ক্রিটিকাল ছিলো। কিন্তু সৃষ্টিকর্তার অশেষ কৃপায় সে এখন অনেকটাই ভালো।তবে তার পূর্ণাঙ্গ সুস্থতার জন্য সময় প্রয়োজন, যা আমরা আগেই বলেছি।চিকিৎসা অব্যাহত রাখতে হবে।

আশাকরি সে আবারও পড়ার টেবিলে বসবে,ফিরবে তার ক্লাসে।
অনন্যাকে সাহায্য পাঠাতে যোগাযোগ করুন-
অরুন কান্তি দে-০১৭৮৫৯১০৭৩৩
কামরুল ইসলাম বাবু-০১৭৭২৬৫১৭৬০

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২০৪ বার

[hupso]

Calendar

August 2019
M T W T F S S
« Jul    
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031