» সাংবাদিকদের বাসা ঈদ উপহার সামগ্রী নিয়ে দানশীল ব্যক্তি ইমতিয়াজ কামরান তালুকদার

প্রকাশিত: 21. May. 2020 | Thursday

Spread the love

করোনাভাইরাস আতংকে পুরো বিশ্বই এখন আতংকিত স্থবির হয়ে পড়েছে মানুষের জীবন ব্যবস্থা । সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটিতে অসহায় মানুষরা।সাংবাদিকদের বাসায় ঈদ উপহার সামগ্রী নিয়ে তরুণ উদ্যোক্তা ও নাট্যকার এবং অভিনেতা সিলেট ফ্রিডম ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও প্রধান পৃষ্ঠপোষক দানবীর মোঃ ইমতিয়াজ কামরান তালুকদার। সাংবাদিকরা জাতির বিবেক তারা জীবন বাজি রেখে পাঠকের ঘরে খবর পৌঁছেদেন। এই দুঃসময়ে তাদের পরিবার-পরিজন সন্তানদের পাশে দাঁড়াতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি। পাশাপাশি করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে সচেতন থাকার কৌশল শেখানোর চেষ্টা করছি।এছাড়াও এর আগে তিনি অসহায় মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত,হতদরিদ্র ও প্রতিবন্ধী ইমাম,মুয়াজ্জিন, কুরআনের হাফেজ,অসচ্ছল বয়স্ক মহিলা পুরুষ,
অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। সিলেট নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে সমাজের সুবিধা বঞ্চিত মানুষের পাশে বিনামূল্যে মাস্ক স্যানিটাইজার ও সাবান,খাদ্য সামগ্রী বিতরণ,নগদ অর্থ প্রদান,নিজ হাতে রান্না করে খাবার বিতরণ,সিলেটের সংস্কৃতি কমীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন,লিফলেট বিতরণ,রমজানে উপহার সামগ্রী বিতরণ,চা শ্রমিকদের উপহার সামগ্রী বিতরণ,ইফতার বিতরণ,অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ,পথশিশুদের জন্য ঈদে নতুন কাপড় বিতরণ,অসহায় চা শ্রমিকদের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ সহ নানা সমাজসেবা মূলক কার্যক্রম করেন। তিনি ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ সিলেট এম সি কলেজে থেকে পলিটিক্যাল সায়েন্সে পোস্ট গ্রাজুয়েশন সূ-সম্পূণ করেছেন। এছাড়াও তিনি মঞ্চ অভিনয় আর টিভি নাটক সঙ্গে জড়িয়ে আছেন পাশাপাশি তিনি তরুণ উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ী।তিনি ব্যবসায়ী কাজে বিভিন্ন দেশ সফর করেন উল্লেখ্য পোল্যান্ড,রাশিয়া,মালয়েশিয়া,দুবাই, সৌদিআরব,থাইল্যান্ড,মায়ানমার,নেপাল,ভূটান,ইন্ডিয়া। সমাজসেবায় তিনি সিলেট বিভাগীয় শ্রেষ্ঠ যুব সংগঠক এওয়ার্ড এবং জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ তরুণ উদ্যোক্তা এওয়ার্ড প্রাপ্ত যুব সংগঠক। তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রতিদিন নগরীর বিভিন্ন প্রান্তের দরিদ্র জনগণ পাচ্ছেন খাদ্য ও ত্রাণ সামগ্রী।তিনি একটি টিম গঠন করেন,কামরান তালুকদার টিম বিনামূল্যে খাদ্য সামগ্রী ঘরে পৌঁছে দেয়। নগরীর বিভিন্ন এলাকায় হতদরিদ্র জনগোষ্ঠীর মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছেন। এ পর্যন্ত প্রায় ১৯শত পরিবারের মাঝে খাদ্য ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন।সব সাংবাদিকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি সবাই আমাকে সব সময় সাহায্য করেছেন।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৭৭ বার

[hupso]
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com